Spread the love

গরিব মেধাবী ছাত্র মেহেদী ড্রেস না পরে স্কুলে আসায় যশোরের শার্শা উপজেলা সরকারি মডেল পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক তাকে পিটিয়ে গুরুতর জখম করে।

বেনাপোল পোর্ট থানা এলাকার কাগজপুকুর গ্রামের বাসিন্দা ইটভাটায় কর্মরত শ্রমিক দরিদ্র পিতা মহিনুর রহমানের ছেলে মেহেদী হাসান সাগর (১৫)। ছেলেকে উচ্চশিক্ষায় শিক্ষিত করার স্বপ্ন নিয়ে মেহেদীকে ভর্তি করেন যশোরের শার্শা উপজেলা সরকারি মডেল পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে। মেহেদী হাসান ওই স্কুলের নবম শ্রেণির মানবিক বিভাগের ছাত্র।

তথ্য মতে, স্কুলের শিক্ষকরা তাকে স্কুল ড্রেস বানানোর জন্য সাত দিনের সময় দেন। অভাবের সংসার তারপরও অনেক কষ্টে ছেলেকে স্কুল ড্রেসের শার্ট বানিয়ে দেন। মঙ্গলবার শুধুমাত্র স্কুলড্রেসের প্যান্ট ছাড়া শার্ট পরে স্কুলে যাওয়ার কারণে মেহেদী হাসানকে স্কুলের প্রধান শিক্ষক ক্লাসরুম থেকে ডেকে নিয়ে স্কুলের ল্যাবরুমের মধ্যে তাকে পশুর মতো পিটিয়ে গুরুতর জখম করে। পরে তাকে আহত অবস্থায় স্বজনরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান।

চিকিৎসাধীন মেহেদী হাসান বলেন, স্কুলড্রেসের প্যান্ট ছাড়া শার্ট পরে স্কুলে যাওয়ায় স্কুলের প্রধান শিক্ষক শহিদুল ইসলাম স্যার আমাকে ক্লাস থেকে ডেকে স্কুলের ল্যাবরুমের মধ্যে নিয়ে পশুর মতো পিটায়।

সে আরও বলে, আমার বাবা ইটভাটায় কাজ করেন। আমরা গরিব। অনেক কষ্টে বাবা আমাকে স্কুলের শার্ট কিনে দিয়েছেন। কিন্তু প্যান্ট কিনে দিতে পারেনি। তবে বাবা সামনের মাসে কিনে দিবে বলে কথা দিয়েছেন আমাকে।

মেহেদীর পিতা মহিনুর রহমান বলেন, আমি গরিব মানুষ, ইটভাটায় কাজ করে কোনো রকমে সংসার চালায়। অনেক কষ্টে ছেলেকে শার্ট কিনে দিয়েছি। কিন্তু প্যান্ট কিনে দিতে পারিনি। তাই বলে এত অত্যাচার করা হবে ছেলের ওপর। আমরা গরিব বলে কি ন্যায়বিচার পাব না?

এই বিষয়ে প্রধান শিক্ষক শহিদুল ইসলাম মেহেদী হাসানকে মারধরের কথা স্বীকার করে বলেন, যা করেছি তাঁর মঙ্গল ও ভালোর জন্য করেছি। এছাড়া আর কোনো কথা বলতে চাননি তিনি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মেহেদী হাসান ফোনে বলেন, আমি ঢাকাতে অবস্থান করছি, তবে ঘটনা শুনেছি। বিষয়টি অমানবিক। ইউএনও তদন্ত কমিটি গঠন করে দিয়েছেন। তদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পর আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শার্শা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পুলক কুমার মণ্ডল বলেন, এ ব্যাপারে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা হাসান হাফিজুর রহমান চৌধুরীকে প্রধান করে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করে দিয়েছি। তদন্ত রিপোর্ট পাওয়ার পর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে’।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here