Spread the love

এবার এসএসসি পরীক্ষার্থী মোঃ তাওসিফ। কক্সবাজার পেকুয়া মডেল সরকারি স্কুলের বিজ্ঞান বিভাগ থেকে পরীক্ষা দিচ্ছে তাওসিফ। আজ বৃহস্পতিবার ইংরেজি পরীক্ষার কেন্দ্র ছিল বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে। সকাল সাড়ে ৮টায় যথা সময়ে পরীক্ষার জন্য প্রস্তুতি নিয়ে বের হচ্ছে এমন সময় পিতার মরদেহ বাড়িতে পৌছায়। কান্নায় ভেঙ্গে পড়লেও পরীক্ষা দেয়ার জন্য পিছিয়ে যায়নি। পিতার মরদেহ বাড়িতে রেখে ছেলে পরীক্ষা শেষ করে বাড়ি ফিরেন।

পেকুয়া গোঁয়াখালি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মওলানা নাজেম উদ্দিন মোঃ তাওসিফের পিতা। গতকাল হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে চমেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৬টায় মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন। ছেলে তাওসিফ একালার সকলের সহানুভূতি নিয়ে পিতার মরদেহ বাড়িতে রেখে পরীক্ষা দিতে গিয়েছিল।

ছেলের চাচা নেজাম উদ্দিন বলেন, ‘ আমার ভাই অনেক ভাল মানুষ ছিলেন, শিক্ষাকতা পেশায় নিয়োজিত থেকে মৃত্যুবরণ করেছেন। ছেলে মেয়েদের তাঁর আদর্শে মানুষ করেছেন।’

এলাকাবাসী বলেন, ‘পিতার শোককে শক্তিতে পরিণত করে ছেলে পরীক্ষা দিচ্ছে। যা এখনকার সময় কল্পনাও করা যায় না। অথচ সেই ঘটনার জন্ম দিল ছাত্র তাওসিফ। তিনি অনেক বড় হবেন এ আশা করছি ’।

পেকুয়া মডেল সরকারি বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জহির উদ্দিন বলেন, “ তাওসিফ খুব মেধাবি ছাত্র। অষ্টম শ্রেণির পরীক্ষায় গোল্ডেন এ প্লাস ও বৃত্তি পেয়েছে। ইনশাল্লাহ এসএসসিতেও ভাল ফলাফল করবে।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here