Spread the love

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে ১৪ বছরের এক বাক প্রতিবন্ধি কিশোরীকে গণধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় জড়িত ৪জনকে শনিবার দুপুরে আটক করেছে পুলিশ। এ খবর পেয়েই বিকালে ঝিনাইদহ পুলিশ সুপার হাসানুজ্জামান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

সূত্রে জানা যায়, ঘটনাটি ঘটে গত ৬ ফেব্রুয়ারি রাতে কালীগঞ্জ উপজেলার ৬নং ত্রিলোচনপুর ইউনিয়নের বানুড়িয়া গ্রামে।

ঘটনার রাতে সেখানে উপস্থিত প্রতিবেশি সবুরা বেগম ও কল্পনা রাণী জানায়, ওই রাতে তারা ধর্ষণের শিকার ওই মেয়ের বাড়িতে টেলিভিশন দেখছিলেন। তখন মেয়েটি বারান্দায় বসে খাবার খাচ্ছিল। কিছুক্ষণ পর তাকে বাড়িতে না দেখতে পেয়ে পরিবার-স্বজনরা খোঁজাখুঁজি শুরু করে। ঘন্টাখানে পর বাড়ির পাশের একটি বাগানে বিবস্ত্র অবস্থায় পাওয়া যায় মেয়েটিকে।

ওই মেয়ের বাবা বলেন, ঘটনার পর থেকেই ধর্ষণকারীরা তাকে ও তাঁর পরিবারকে হুমকি দিয়ে আসছিল যাতে কাউকে না জানায়। শুক্রবার রাতেও সাঈদ নামের ছেলেটি তাকে ফোন করে মেরে ফেলার হুমকিও দেয়। এরপর তিনি বিষয়টি স্থানীয় জনপ্রতিনিধির মাধ্যমে কালীগঞ্জ থানা পুলিশকে জানান। পুলিশ শনিবার দুপুরে অভিযুক্ত ৪জনকে আটক করে।

আটকরা হলেন- বালিয়াডাঙ্গা গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে সেলিম পাটয়ারী, বানুড়িয়া গ্রামের হায়দার আলীর ছেলে সাঈদ হোসন, নুর আলির ছেলে রাকিব হোসেন এবং লাল চানের ছেলে আশিক।

কালীগঞ্জ থানার ওসি ইউনুচ আলী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ঘটনার সাথে জড়িত ৪ জনকে আটক করা হয়েছে। এরপর সংবাদ পেয়ে পুলিশ সুপার মহোদয় ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

তিনি আরো জানান, ধর্ষণের শিকার কিশোরীকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here