Spread the love

চীনের ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি অব চায়না বিশ্ববিদ্যালয়ে থেকে ‘বেস্ট রিসার্চ পেপার অ্যান্ড প্রেজেন্টেশন অ্যাওয়ার্ড’  পেয়েছেন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক তারেক হাসান আল মাহমুদ।

তার গবেষণার বিষয়বস্তু ছিল ‘অ্যারে সিগনারপ্রসেসিং স্পেশালাইজড অন ডিরেকশন অব অ্যারেভাল ইস্টিমেশন।’ তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনফরমেশন অ্যন্ড কমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সহকারী অধ্যাপক। বর্তমানে তিনি ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি অব চায়নাতে পিএইচডি প্রোগ্রামে অধ্যয়নরত।

তার এ কৃতিত্বে অভিনন্দন জানিয়েছেন ইবি প্রশাসন। তারা বলেন, ‘তারেক হাসান এই বিশ্ববিদ্যালয়ের গর্ব। এই কৃতিত্বের মধ্য দিয়ে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়সহ বাংলাদেশকে গর্বিত করেছেন তিনি।’

পদকটি বিশ্ব বিখ্যাত তথ্যপ্রযুক্তিভিত্তিক সংস্থা আইফ্লকটেক কোম্পানির সেরা উদ্ভাবনী কাজের বিজয়ী ঘোষণা করেছেন প্রতিষ্ঠানটি। আইফ্লকটেক কোম্পানি প্রোগ্রামের স্পন্সর করেন।

পুরস্কারটি চীনে খুবই মর্যাদাপূর্ণ। এটি বিশ্ববিখ্যাত তথ্য প্রযুক্তি ভিত্তিক সংস্থা আইফ্লাইটেক স্পন্সার করেছেন। প্রতিযোগীতাটি তিনটি পর্যায়ে অনুষ্ঠিত হয়। প্রথম পর্যায়ে সকল গবেষণাগারের পরিচালকগণ ন্যাশনাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের পরীক্ষাগার হতে নিজ নিজ সেরা গবেষণাপত্র বেছে নিয়েছেন।তারপর সেই গবেষণাপত্র গুলো বিশেষজ্ঞ রিভিউয়ার দ্বারা পর্যালোচনা করার পর ২০ জন শিক্ষার্থী চূড়ান্ত পর্বে উপস্থাপনের জন্য মনোনীত হয়। তাদের (শিক্ষার্থীদের) উপস্থাপনা শেষে জুরিবোর্ড কর্তৃক সেরা গবষেণা নির্বাচিত হয় তারেক হাসান আল মাহমুদের গবেষণা ‘অ্যারে সিগনারপ্রসেসিং স্পেশালাইজড অন ডিরেকশন অব অ্যারেভাল ইস্টিমেশন।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here